এমসি কলেজে গণধর্ষণ : হাইকোর্টে বিচারিক কমিটির প্রতিবেদন পেশ

প্রকাশিত: ১:২০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২০

সু:ডাকডেস্ক:
সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজের ধর্ষণের ঘটনা তদন্তে আদালতের গঠন করে দেওয়া কমিটির প্রতিবেদন হাইকোর্টে জমা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিচাপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে প্রতিবেদনটি জমা হয়। তবে প্রতিবেদনে কী আছে; তা জানা যায়নি। আগামী ১ নভেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছেন আদালত।
প্রতিবেদন জমা হওয়ার পর বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক বলেন, ‘১৭৬ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনটি ১১টায় এসেছে। প্রতিবেদনটি দেখার সুযোগ হয়নি। এ অবস্থায় আগামী ১ নভেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন রাখা হচ্ছে।’ এ সময় হাইকোর্টের ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে যুক্ত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ মো. রাসেল চৌধুরী এবং এ ধর্ষণের ঘটনার প্রকাশিত খবর-প্রতিবেদন নজরে আনা আইনজীবী মোহাম্মদ মিসবাহ উদ্দিন।
এর আগে গত ২৯ সেপ্টেম্বর উচ্চ আদালত এ ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করে দেয়। তার আগে ধর্ষণের ঘটনায় কলেজ কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনায় কোনো ঘাটতি ছিল কিনা, তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ তিন সদস্যের ওই কমিটি গঠন করে গত ২৮ সেপ্টেম্বর আদেশ জারি করে। এরও আগে গত ২৭ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ মিসবাহ উদ্দিন এমসি কলেজের ধর্ষণকান্ডের প্রকাশিত খবর-প্রতিবেদন আদালতের নজরে এনে প্রয়োজনীয় আদেশের আরজি জানান।
গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৯টার দিকে এমসি কলেজে ধর্ষণকান্ডের ঘটনাটি ঘটে। স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে যাওয়া এক নারীকে কলেজের ছাত্রবাসের সামনে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমানসহ তার সহযোগীরা। পরদিন সকালে ওই নারীর স্বামী এ ঘটনায় শাহ পরান থানায় সাইফুর রহমানকে প্রধান আসামি করে নয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ধর্ষণের ঘটনায় মোট আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এই সংবাদটি 20 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ