দিরাই পৌরসভা নির্বাচন: প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করলে আ’লীগ থেকে বহিষ্কার হতে পারেন মেয়র মোশারফ

প্রকাশিত: ৩:০৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৪, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করলে সুনামগঞ্জের দিরাই পৌরসভার মেয়র মোশারফ মিয়া আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার হতে পারেন। দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে দিরাই পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করায় তাকে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক থেকে বহিষ্কার করা হবে বলে নেতারা জানিয়েছেন। একই সঙ্গে ভবিষ্যতে তাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হবে না। তবে ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলে তিনি বহিষ্কার হবেন না।
উল্লেখ্য, দিরাই পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মোশাররফ মিয়ার বিভিন্ন সময়ে বিতর্কিত বক্তব্যে নিজ দলে ও প্রতিপক্ষ দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেন।
বুধবার এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল কবির ইমন ইতিমধ্যে গণমাধ্যমকে জানিয়ে দিয়েছেন।
মতিউর রহমান জানান, দিরাই পৌরসভার বর্তমান মেয়র যদি স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করেন তবে তিনি আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার হবেন। তবে এখনও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময় আছে। এরপরও যদি তিনি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করেন আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবে।
তিনি বলেন, যারা দলের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করবে তাদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত আছে আমাদের। এছাড়া তারা আওয়ামী লীগের সদস্যপদ পাবেন না। ভবিষ্যতে কখনও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। কেন্দ্রীয় কমিটি আমাদের এমন নির্দেশনা দিয়েছে। আমরা সেই বিষয়ে যথেষ্ট সতর্ক রয়েছি।কেন্দ্রীয় কমিটি ও জেলা কমিটির সিদ্ধান্ত যারা মানবে না তাদের ছাড় দেয়া হবে না।
আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, বিদ্রোহীদের ব্যাপারে কঠোর আওয়ামী লীগ। দেশের কোনো পৌরসভা নির্বাচনেই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী রাখতে চায় না আওয়ামী লীগ। শুধু বিদ্রোহীই নয়, নির্বাচনে দল মনোনীত প্রার্থীর বাইরে দলীয় অন্য প্রার্থীর ইন্ধনদাতাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। এবার যারাই বিদ্রোহী প্রার্থী হবেন আজীবনের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।
ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৮ ডিসেম্বর দিরাই পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন প্রার্থীরা। নির্বাচনে আটজন মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।
সুনামগঞ্জের দিরাই পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মোশাররফ মিয়ার বিতর্কিত বক্তব্যে নিজদলে ও প্রতিপক্ষ দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেন।
২০১৮ সালের ডিসেম্বরে মোশাররফ মিয়ার ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য নিয়ে উপজেলাজুড়ে তোলপাড় ও সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। দিরাই উপজেলা সদরে এক সমাবেশে মেয়র মোশাররফ মিয়া হুমকি দিয়ে বলেন, ‘নৌকার পক্ষে আসনের সব ভোটকেন্দ্র দখল করা হবে এবং এতে বিএনপি নেতাকর্মীরা বাধা দিলে তাদের চোখ উপড়ে ফেলা হবে।’

 

এই সংবাদটি 33 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ