উন্নয়নের জন্য সরকারের টাকার অভাব নেই -পরিকল্পনা মন্ত্রী

প্রকাশিত: ৩:৩৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০২০


রেজাউল করিম রেজা : গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, উন্নয়নের জন্য সরকারের টাকার অভাব নেই। তাই সরকার ৩০হাজার কোটি টাকা ব্যায়ে পদ্মা সেতু নির্মাণ করেছে। দেশের বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্পগুলো এক এক করে বাস্তবায়িত করে যাচ্ছে শেখ হাসিনার সরকার। সুনামগঞ্জবাসীর জন্য সরকার একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয় স্থাপনের অনুমোদন দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন উন্নয়নের ক্ষেত্রে সরকারের কাছে কোন কিছুর অভাব নাই। কিন্তু আমাদের মধ্যে একটি জিনিসের অভাব আছে, আর সেটি হলো ইমানের। চোরি-ছামারিরও ভয়ঙ্কর অভ্যাস আছে। কোন্দলের কারণে একে অপরকে সহ্য করতে পারি না। তাই এসব থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। শনিবার দুপুরে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্টে ছাতক-দোয়ারাবাসীর ব্যানারে আয়োজিত পথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথাগুলো বলেন। ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুলের সভাপতিত্বে আয়োজিত পথ সভায় দাবীর প্রেক্ষিতে মন্ত্রী আরও বলেন, সড়কের পাশে অবৈধ স্থাপনাসহ সড়ক উন্নয়নের বিষয়ে সড়ক ও সেতু মন্ত্রীর সাথে আলাপ করবেন। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানে গোবিন্দগঞ্জ চত্ত্বরকে মুক্তিযোদ্ধা চত্ত্বর হিসেবে বাস্তবায়নের আশ্বাস দেন এবং পর্যায়ক্রমে এলাকার যাবতীয় সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবেন। পথ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জ জেলা আ’লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক শামীম আহমদ চৌধুরী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এর সাবেক কমান্ডার আনোয়ার রহমান তোতা মিয়া, ছাতক থানার ওসি শেখ নাজিম উদ্দিন, কেন্দ্রিয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য শাহিন আহমদ চৌধুরী, কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক মাসুদ কামাল সূফি, ছাতক উপজেলা যুবলীগ নেতা এসএম দিলওয়ার হোসেন চয়ন, আশরাফুর রহমান চৌধুরী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সহ-সভাপতি এম এ রহিম, স্কুল শিক্ষক পঙ্কজ দত্ত ও রেজ্জাদ আহমদ, উপজেলা যুবলীগ নেতা কাওছার আহমদ প্রমূখ। মন্ত্রী সকালে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছলে সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও কেন্দ্রিয় আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিছবাহ উদ্দিন সিরাজের নেতৃত্বে বিমানবন্দর তাকে সংবর্ধনা জানানো হয়। পরে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক দিয়ে মন্ত্রীকে বিশাল বহরে নিয়ে যাওয়া হয় তার নিবার্চনী এলাকায়।গোবিন্দগঞ্জ পথ সভা শেষে সড়কের ধারণ বাজার ও পরে জাউয়াবাজারে সংক্ষিপ্ত পথ সভায় বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী।

এই সংবাদটি 141 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ