জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নাম একজন বাঙালি বেঁচে থাকা পর্যন্ত নিশ্চিহ্ন করা সম্ভব হবেনা – প্রতিবাদ সভায় বক্তারা

প্রকাশিত: ৩:৩০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০২০


মিজানুর রহমান মিজান :  ‘জাতির পিতার সম্মান, রাখবো মোরা অম্লান’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙ্গা ও জাতির পিতাকে অবমাননার প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন স্থানে রাজপথে নেমেছেন বাংলাদেশ এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশন। তারই ধারাবাহিকতায় সুনামগঞ্জ জেলার সর্বস্থরের সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দের উদ্যোগে সুনামগঞ্জে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সমাবেশে সরকারের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। তারা এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে দোষীদের কঠোর বিচার দাবি করেছেন।
গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে স্থানীয় ঐতিহ্য জাদুঘর প্রাঙ্গণে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মো: ওয়াহিদুজজামান শিকদার; পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমান বিপিএম; বিজ্ঞ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো: আমিরুল ইসলাম; সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ নীলিমা চন্দ; সিভিল সার্জন ডা: মো: শামসউদ্দিন; স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সুনামগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: মাহবুব আলম, সুনামগঞ্জ এসসি বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাফিজ মশহুদ চৌধুরী, শিক্ষিকা নাসিমা আক্তার প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সুনামগঞ্জ পৌর কলেজের অধ্যক্ষ ও সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মো: শেরগুল আহমদ সহ জেলার বিভিন্ন স্তরের সরকারী কর্মকর্তা, শিক্ষকবৃন্দ ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারী কমিশনার মো: আরিফুল ইসলাম।
প্রতিবাদ সমাবেশে গত ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে কুষ্টিয়ায় রাতের আঁধারে কতিপয় দুস্কৃতিকারী কর্তৃক হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভেঙ্গে ফেলার প্রতিবাদে তীব্র নিন্দা, ঘৃনা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। সভায় জাতির পিতার সর্বোচ্চ সম্মান অক্ষুন্ন রাখার ক্ষেত্রে দৃঢ় প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করা হয়। একই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের অভিযাত্রায় অদম্য বাংলাদেশের চলমান অগ্রযাত্রা বেগবান করার ক্ষেত্রে সকলে মিলে একযোগে কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়। বক্তারা আরো বলেন, সারাদেশে মুক্তিযোদ্ধাসহ নানা বিষয়ে ভাস্কর্য রয়েছে। কিন্তু দেশের চিহ্নিত একটি গোষ্ঠী জাতির পিতার ভাস্কর্য নির্মাণের শুধু বিরোধীতাই নয় তার ভাস্কর্য ভাঙ্গচুর করেছে।
বক্তারা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু বাঙালির একটি শ্বাশ্বত চেতনার নাম। এই চেতনা একজন বাঙালি বেঁচে থাকা পর্যন্ত নিশ্চিহ্ন করা সম্ভব হবেনা। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীরা এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে দোষীদের শাস্তি ও ধর্মের নামে দেশের শান্তিপ্রিয় মানুষদের বিভ্রান্ত না করার অনুরোধ জানান।

এই সংবাদটি 24 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ