# মরণ বসন্ত # *সুলতানা রাজিয়া আছমা *

প্রকাশিত: ৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২১

উন্মাতাল প্রণয়ের গাঁথা মালা
পড়িয়ো মোর অঙ্গে
জীবনের অবসানে সাজাবে যখন
শ্বেত বসনা রঙ্গে ।
মরণ বসন্তের চুম্বনেতে বিবশ যখন
আমার দশদিক
তখন ও ভালোবাসবে আমায়
প্রাণের ও অধিক !

উন্মুদ্র ঊষার লগ্নে আমায় রাখো তুমি
পরম আদরে আদরে
নিজেরে বিলাই তাইতো প্রিয়
তোমারই প্রণয়ের তরে ।

মোর উষ্মিলিত আঁখি পানে
চেয়ে দেখো প্রিয়
হৃদয় দিয়ে নিগুঢ় ভালোবাসা
তুমি বুঝে নিও ।
গহন বিপিন মাঝে তাকাই একান্তে
প্রিয় তোমারই পানে
কি করে ত্যাগীব তোমারই প্রণয়
ভাবি মনে মনে ।

করি যখন চিন্তন বসে নিরালায়
বারেবারে এই কথাটিই মনে ধায় !

দ্যুলোকে ভূলোকে কতো লীলাভরে চলি
মোহমায়ায় মজে আছি আখিরাতের পথ ভুলি!

তুমি আমি আমরা সবাই উচল পথের পথিক
অচল পথের যাত্রী
যেতেই হবে ছেড়ে অধিক মায়ার এই ধরিত্রী ।

বিত্ত বৈভব সব রইবে পিছনে পড়ে
চলে যাবো রিক্ত হস্তে জনমের তরে ।

ঘুচে যাবে ধরণীতে আছে যতো বিভঙ্গী বিলাস
অন্ধকার ঘরে হবে চিরস্থায়ী আবাস ।

প্রিয়তম ,খুব জানতে ইচ্ছে করে,,,,,,,,,,,,,,!

সবাই যখন ব্যস্ত হবে নিজের কাজের তরে
তুমি ও কি ভুলে যাবে তোমার প্রেয়সিরে?
বিজন রাতে আসে যদি আমার কথা মনে
আমায় খুঁজে নিও তখন
কবি কুঞ্জের কবিতা কাননে ।

প্রিয়, রেখে গেলাম এই মিনতি
তোমার কাছে প্রণয়ের যত আকুতি।

শেষ বিদায়ের আগে তুমি একটু ছোঁয়ে দিও
আমার হাতের পরশ তুমি নিজেই নিয়ে নিও ।

মোর গোরের পাশে তুমি নিয়ম করে যেও
দু’হাত তুলে মাওলার কাছে মাফি মাঙ্গিয়ো ।

শত পয়সা দিও তুমি শত সায়েলের হাতে
ক্ষমা যদি করেন দয়াল তাদের দোয়ার বদৌলতে ।

এই সংবাদটি 167 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ