কাল থেকে করোনার টিকাদান শুরু : দেয়া হবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সহ ৪০টি কেন্দ্রে

প্রকাশিত: ৪:১৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১

মিজানুর রহমান মিজান:
সারা দেশের মতো রবিবার থেকে সুনামগঞ্জ জেলায় ও করোনার টিকা দেওয়া শুরু হবে। এ জন্য জেলা সদর ও উপজেলা পর্যায়ে ৪০টি কেন্দ্র নির্ধারন করা হয়েছে। সুনামগঞ্জ স্বাস্থ্য বিভাগ টিকার দেওয়ার প্রস্তুতি সম্পন্ন করলেও টিকার নিবন্ধনের জন্য গ্রামাঞ্চলে প্রচার-প্রচারণা তেমন পরিলক্ষিত হয়নি।
জেলা সিভিল সার্জন সূত্রে জানা গেছে, সুনামগঞ্জে ৮৪ হাজার ডোজ করোনার টিকা এসেছে। টিকা দেওয়ার জন্য সিরিঞ্জ এসেছে ৮৮ হাজার। রবিবার থেকে ৪০টি কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। এর মধ্যে জেলা সদর হাসপাতালে থাকবে ৮টি কেন্দ্র, জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ২টিকেন্দ্রে এবং প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনটি করে মোট ৩০টি কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। প্রতিদিন সকাল ৮ ঘটিকা থেকে বিকাল ৩ ঘটিকা পর্যন্ত টিকা প্রদান চলবে। শনিবার দুপুর পর্যন্ত জেলায় টিকা দেওয়ার জন্য কতজন মানুষ নিবন্ধন করেছেন, সেটি নিশ্চিত করতে পারেনি স্বাস্থ্য বিভাগ।
সুনামগঞ্জে টিকার নিবন্ধনে শহর কেন্দ্রিক প্রচারণা থাকলেও গ্রাম ও ইউনিয়ন পর্যায়ে সেটা নেই। তাই টিকার নিবন্ধনে ইউনিয়ন পরিষদের তথ্য ও সেবাকেন্দ্র, কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে ব্যবস্থা রাখার পরও গ্রামপর্যায়ে প্রয়োজনীয় প্রচারণা নেই। এছাড়া বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্বাস্থ্যকর্মীরা নিবন্ধনের জন্য মানুষকে উদ্বুদ্ধ ও সহায়তার করার কথা থাকলেও সেটি এখনো সুনামগঞ্জে শুরু হয়নি। বিষয়টি নিয়ে প্রচারণা বেশি দরকার।
সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাক্তার মো: রফিকুল ইসলাম বলেন,সদর হাসপাতালে ৮টি বুথে সকাল ৮ ঘটিকা থেকে বিকাল ৩ ঘটিকা পর্যন্ত টিকা প্রদান করা হবে, জেলা সিভিল সার্জন অফিসে থাকবে আরো ২টি বুথ। সুষ্ট টিকাদান নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে।
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সৌমিত্র চক্রবর্তী জানান, ১০টি বুথ প্রস্তুত থাকবে। তবে টিকা দেওয়া হবে আটটিতে। প্রতিটি বুথে ছয়জন করে স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবেন। তাঁদের মধ্যে স্বাস্থকর্মী, রেড ক্রিসেন্ট ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা রয়েছেন। দুজন স্বাস্থ্যকর্মী থাকবেন টিকা দেওয়ার দায়িত্বে।পাশাপাশি জরুরি প্রয়োজনের জন্য মেডিকেল টিমও প্রস্তুত থাকবে কেন্দ্রে। সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন মো. শামস উদ্দিন বলেছেন, জেলায় টিকা প্রদানের সব প্রস্তুতি রয়েছে। নিবন্ধনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রচারণাও আছে। টিকা দেওয়া শুরু হলে মানুষ জানবেন, সেই সঙ্গে প্রচারণাও বাড়বে। এ জন্য সবখানেই প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া আছে।

 

এই সংবাদটি 58 বার পঠিত হয়েছে