শাল্লায় অপরিকল্পিত কালভার্ট নির্মাণ: প্রতিবাদে গ্রামবাসীর মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৩:৫৪ অপরাহ্ণ, জুন ৫, ২০২১


দিলুয়ার হোসেন :
শাল্লা উপজেলার বাহাড়া ইউনিয়নের আঙ্গারোয়া গ্রামের ছোট হাটি সংলগ্ন একটি কালভার্ট অপরিকল্পিতভাবে নির্মাণ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন গ্রামবাসী। এর প্রতিবাদে তারা মানববন্ধন করেছেন। মানববন্ধন থেকে অবিলম্বে অপরিকল্পত কালভার্ট নির্মাণকাজ বন্ধের দাবি জানিয়েছেন তারা। শুক্রবার সকালে গ্রাম সংলগ্ন দিরাই-শাল্লা সড়কে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। ভবানী চরণ দাসের সভাপতিত্বে ও গিরিধর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মৃদুল কান্তি দাসের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি বিশ্বজিৎ চৌধুরী নান্টু, মন্টু চন্দ্র দাস, পিলু দাস, সীতেশ দাস, হিমাদ্রি সরকার হিমেল, অখিল দাস, নিলেন্দু দাস, নলিনী দাস, শান্তনু দাস, হীরেন্দ্র দাস, সুরঞ্জিত দাস প্রমুখ। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আঙ্গারোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এই রাস্তায় অপরিকল্পিতভাবে একটি কালভার্ট নির্মাণ করতে যাচ্ছে বাহাড়া ইউনিয়ন পরিষদ। যার নেতৃত্বে রয়েছে ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ভানু রঞ্জন দাস। সচিব ভানু রঞ্জন দাস তার নিকট আত্মীয়দের দিয়ে এসব অপরিকল্পিত কালভার্ট নির্মাণ করে পানি নিষ্কাশনের নামে ফায়দা লুটতে চান। এখানে কালভার্ট নির্মাণ হলে গ্রামবাসীর ধান শুকানোর খলা, দেবত্ব স্থান শায়েরী গাছতলা, ছোটহাটি, বড়হাটিসহ ছায়ার হাওর পর্যন্ত হুমকির মুখে পড়বে। বক্তারা আরও বলেন, আমরা কালভার্ট নির্মাণ বন্ধের জন্য গত মে মাসের ১৬ তারিখ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। এ ব্যাপারে বাহাড়া ইউপি সচিব ভানু রঞ্জন দাসের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি কল রিসিভ করেননি। এ বিষয়ে সদর ইউপি চেয়ারম্যান বিধান চৌধুরী বলেন, এলজিএসপির কাজ এটি। কালভার্ট নির্মাণে গ্রামের এতো বড় ক্ষতি হবে তা আগে বুঝতে পারিনি। গ্রামের ক্ষতি হলে এখানে কালভার্ট নির্মাণ না করাই ভালো বলে।

এই সংবাদটি 57 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ