জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীর হত্যাকারী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৫:১০ অপরাহ্ণ, জুন ১১, ২০২১


জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে চাঞ্চল্যকর মাদরাসা ছাত্রী সানজিদা হত্যাকান্ডের মূলহোতা আপন চাচা রবিউল ইসলাম ২৪ঘন্টার ভিতর র‌্যাব-৯ হাতে গ্রেফতার। বৃহস্পতিবার ভোররাতে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ থানার মোস্তফাপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। র‌্যাব-৯উপ-পরিচালক কোম্পানী অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদ গতকাল শুক্রবার সকালে গণমাধ্যম কর্মীদের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, সানজিদা হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে পুলিশের পাশাপাশি ছায়া তদন্ত শুরু করে ব্যাপক তৎপরতা চালায় র‌্যাব। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের চৌকশ একটি ১০ সদস্য বিশিষ্ট অভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক লেঃকমান্ডার সিঞ্চন আহমেদের নেতৃত্বে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ থানার মোস্তাফাপুর গ্রাম থেকে ঘাতক রবিউলের স্ত্রী সুহি আক্তারের বড়বোনের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। প্রবাসী টাকার ভাগবাটোয়ারা নিয়ে সানজিদাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। শ্বাসরূদ্ধকর ১০ ঘন্টার এই অভিযানে যা জানা যায় নিহত সানজিদার বাড়ির লোকদের মাধ্যমে ঘাতক রবিউলের শশুরবাড়ির ঠিকানা নিয়ে র‌্যাবের চৌকশ ১০ বিশিষ্ট একটি অভিযানিক দল কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদের নেতৃত্বে সিনিয়র এ এসপি আব্দুল্লাহ, এসআই কাজল চন্দ্র দেব, এমসআই রমিজ, উত্তম, কামরুল, আরাধন, মাহবোব, তাজুল, মুস্তাকিম সহ বৃস্পতিবার রাতেই হবিগঞ্জের উদ্যেশে রওনা হয়ে নবীগঞ্জে রবিউলের শশুর বাড়িতে যায়। সেকানে শশুরবাড়ির লোকদের রবিউলের অবস্থাান জিজ্ঞাসা করলে তারা রবিউল তাদের বাড়িতে আসেনি বলে অস্বীকার করে। রবিউলে স্ত্রী সুহি আক্তারের চাচাত ভাই কে জিজ্ঞাসা করে রবিউলের অবস্থান সম্পর্কে জানা যায়। পরে রবিউলের আপন শালা কামরান রবিউলের অবস্থান নিশ্চিত করে জানায় সুহি আক্তারের বড়বোনের বাড়ি ইনাতগঞ্জের মোস্তফাপুরে রবিউল আত্মগোপন করে আছে। ভোর রাতে ইনাতগঞ্জের মোস্তফাপুরে সফল অভিযান চালিয়ে র‌্যাব ঘাতক রবিউল কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রবিউল হত্যাকান্ডের পরিকল্পনা কার্যক্রম ও মোটিভ স্বীকার করে জানায় প্রবাসী ভাইয়ের টাকা পয়সা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে নিহত সানজিদার বাবা ছয়ফুল ইসলামের সাথে তাদের মনোমালিন্য ছিল। প্রবাসী ভাইয়ের কোন ছেলে মেয়ে না থাকায় নিহত সানজিদা কে তিনি সব সময় গুরুত্ব দিতেন তার মাধ্যমে টাকা পয়সার সব বিষয়ে আলোচনা করতেন সেই বিষয়টিকে মানতে কষ্ট হত। তার জের ধরেই সানজিদাকে প্রাণে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করে তাকে হত্যা করা হয়। গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব-৯ উপ-পরিচালক কোম্পানী অধিনায়ক লেঃ কমান্ডার সিঞ্চন আহমদ জানান, সানজিদা হত্যাকান্ডের আসামী রবিউল কে জগন্নাথপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এই সংবাদটি 9 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ