গৃহহীনদের মিস্ত্রিখরচ ও মালামাল পরিবহনের নামে নেয়া টাকা ফেরত দিলেন ইউএনও

প্রকাশিত: ৪:১৬ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০২১


সুলেমান কবীর:
প্রধানমন্ত্রীর উপহার গৃহহীনদের ঘর নির্মাণের সময় পরিবহন ও মিস্ত্রি খরচের নামে নেয়া ৫৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা ফেরত দেয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলায় এক হাজার ৪৩৫ গৃহহীনকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার গৃহনির্মাণ করে দেয়া হয়। গত জানুয়ারি মাসে এ উপজেলার ঘর প্রদানে স্থানীয়ভাবে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। ঘরের মেঝেতে ইট না দিয়ে বালু-সিমেন্টের মিশ্রণে ফ্লোর নির্মাণ, নিম্নমানের ইট-বালু ও পাথর ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে। এছাড়া নির্মাণে মালামাল পরিবহনের টাকা ও মিস্ত্রির টাকা গৃহহীনদের দিতে বাধ্য করাসহ নানাভাবে অসহায় মানুষজনের কাছ থেকে টাকা নেয়ার অভিযোগ ওঠে।
তদন্ত শেষে জেলা প্রশাসক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন পরিবহন খরচের টাকা ফেরত দিয়ে ইট সলিং দিয়ে ঘরগুলোর মেঝে পাকা করার নির্দেশ দেন। শাল্লা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আল মুক্তাদীর হোসেন বলেন, পরিবহনের বরাদ্দ শুরুতে আসেনি, এজন্য দিতে পারিনি। ৬ জুন এক হাজার ৪৩৫ ঘরের প্রত্যেককে চার হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, “আমি যোগদানের পরই শাল্লায় গৃহনির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। আমাদের চোখে নানা ত্রুটি-বিচ্যুতি ধরা পড়ে। আমরা সেগুলো সংশোধন করেছি। এখনো কিছু ঘরের সংস্কার কাজ চলছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ৫৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা প্রদানে বাধ্য করা হয়েছে। ৭ জুন শোকজ করা হয়েছে। শোকজের জবাব পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

এই সংবাদটি 43 বার পঠিত হয়েছে