সুনামগঞ্জে কঠোর বিধিনিষেধের দ্বিতীয় দিনে লক ডাউন মানাতে হার্ডলাইনে প্রশাসন ।

প্রকাশিত: ৫:০৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২১

সুলেমান কবির :
করোনার প্রথম ঢেউয়ের প্রকোপ কাটিয়ে উঠতে না উঠতে আবার শুরু হয়েছে আরেকটি ঢেউ। সেটি সামাল দিতে গত এপ্রিল থেকে বিধি-নিষেধের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে দেশ। করোনা পরিস্থিতির অবনতির কারণে সরকার কঠোর লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
করোনাভাইরাসের কারণে দ্রুত অবনতি হওয়া পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বৃহস্পতিবার থেকে জারি করা কঠোর বিধিনিষেধের দ্বিতীয় দিন ছিল শুক্রবার । কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে এবার সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সব অফিস সাত দিনের জন্য বন্ধ রয়েছে।
শুক্রবার সকাল থেকেই সুনামগঞ্জে ছিল অঝোর ধারায় বৃষ্টি। এছাড়া সাপ্তাহিক বন্ধের দিন হওয়ায় রাস্তাঘাট প্রায় জনশূন্য। ব্যক্তিগত যানবাহনও তেমন একটা দেখা যায়নি। বিভিন্ন সড়কে অল্প কিছু রিকশা, মাইক্রোবাস, ট্রাক,কার্ভাড ভ্যান, পিকআপ চলাচল করতে দেখা গেছে। সংক্রমণ রোধে ১ জুলাই থেকে সর্বাত্মক লকডাউনে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হতে পারবে না। নতুন লকডাউন এক সপ্তাহ থাকার কথা থকলেও, তা নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় রয়েছে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলারসহ অন্যান্য উপজেলার স্বল্প আয়ের মানুষগুলো। মধ্যবিত্তের দুশ্চিন্তার শেষ নেই। কারণ শেষ অবলম্বন হিসেবে রাখা সঞ্চয়ে আবার আঘাত আসছে।
মধ্যবিত্ত পরিবারগুলো কোথাও গিয়ে হাত পাতাও তাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।
সদর উপজেলার লালপুর গ্রামের বাসিন্দা দুধ বিক্রেতা মালেক মুন্সি জানান, ‘প্রতিদিন বাড়ি থেকে শহরে দুধ এনে বিক্রি করি। লকডাউনের কারণে চরম দুশ্চিন্তায় আছি। সময় মত বিক্রি করতে না পারলে দুধ নষ্ট হয়ে যায়। এদিকে বিশম্ভরপুর উপজেলার সোনার পাড়া গ্রামের কৃষক মুক্তোমিয়া জানান, তার খেতের ফসল বিক্রি করে সংসারে চালান । গতবছর টানা বন্যায় ক্ষতি এখনও পুসিয়ে উঠতে পারেনি তার উপর লকডাউন। তিনিও দুশ্চিন্তায় আছেন। জেলে তুতি মিয়া জানান, নদীতে ভরা মৌসুমেও মাছ নেই । সামান্য কিছু বিভিন্ন প্রজাতির মাছ বাজারে বিক্রি করে সংসার চালান । এবার লকডাউনে তারও চোখে মুখে দুশ্চিন্তার ভাঁজ। এদিকে সুনামগঞ্জে লকডাউনে বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থান নিয়েছে জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। লকডাউনে প্রথম ও দ্বিতীয় দিনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটেগণের নেতৃত্বে সুনামগঞ্জ জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় আইন অমান্য করলে ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষকে জরিমানার আওতায় আনা হয়।
জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন সহ বিজিবি, সেনাবাহিনী, আনসার যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করছে।
সারা দেশের ন্যায় সুনামগঞ্জেও কঠোরভাবেই লকডাউন কার্যকর করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন হাট-বাজারসহ পাড়া-মহল্লায় অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে । প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী লকডাউন সফল করতে খুব তৎপর রয়েছে।
(

এই সংবাদটি 44 বার পঠিত হয়েছে