লকডাউনে জামালগঞ্জে সাত জনকে জরিমানা, সেনাবাহিনী কর্তৃক খাদ্য সহায়তা বিতরন

প্রকাশিত: ৪:৩৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ৭, ২০২১

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি:
করোনা ভাইরাস সংক্রমন নিয়ন্ত্রনে শুরু হয়েছে কঠোর লকডাউন। জনস্বার্থে সরকার ঘোষিত লকডাউন কার্যকরে কঠোর অবস্থানে উপজেলা প্রশাসন। বুধবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতা লক্ষ করা যায়। লকডাউন শতভাগ নিশ্চিত করতে মাঠে রয়েছে আইন-শৃংখলা বাহিনী ও উপজেলা প্রশাসনের পাশা-পাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকেও টহল সহ মাস্ক ও অসহায়দের খাদ্য সহায়তা দিতে দেখা গেছে। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে স্বাস্থ্য বিধি না মানায় সরকারি আদেশ অমান্য করার অপরাধে সাত জনকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। সাচনাবাজার ও তার আশ-পাশে দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারায় নেপাল দাশকে ২০০ টাকা, রশিদ মিয়াকে ৫০০ টাকা, হাবিবুর রহমানকে ২০০ টাকা, সাইফুল ইসলামকে ৫০০ টাকা, জুয়েল মিয়াকে ২০০ টাকা, সজিব কে ৫০ টাকা, মনছুর মিয়াকে ৪০ টাকা, অর্থ দন্ড করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালতের নেতৃত্ব দেন উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ রেদুয়ানুল হালিম, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন মোঃ ইলিয়াছ ফেরদৌস এবং জামালগঞ্জ থানার এস.আই আব্দুল বাতেন সহ সঙ্গীয় ফোর্স, উপজেলা ভূমি অফিসের পেশকার মোঃ মুজাহিদ খাঁন। এই ব্যাপারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৭ পদাতিক ডিভিশন সিলেট অঞ্চলের ক্যাপ্টেন মোঃ ইলিয়াছ ফেরদৌস জানান আইন-প্রয়োগের পাশা-পাশি জনসচেতনতার কোন বিকল্প নেই। তবে করোনা ভাইরাস সংক্রমন রোধে মানুষ মাস্ক না পড়লে এবং সরকারি আদেশ অমান্য করলে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা সহ কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভ্রাম্যমান আদালতের এই অভিযান উপজেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সম্বন্নয়ে অব্যাহত থাকবে। জনসচেতনতার পাশা-পাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী অসহায় দরিদ্রের মাঝে প্রতিদিন মাস্ক ও খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। আজও আমরা ২০ জন অসহায় দরিদ্রের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরন করেছি। আমাদের এই কার্য্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

এই সংবাদটি 13 বার পঠিত হয়েছে