রোগ বালাই যাই থাকুক, চিকিৎসকরা করোনার টিকা নিতে বলছেন। বিশেষ করে ডায়াবেটিস থাকলে তাড়াতাড়ি এই প্রতিষেধক নিতে বলা হচ্ছে। কারণ এই রোগীরা সবচেয়ে বেশি সমস্যায় ভোগেন করোনায় আক্রান্ত হলে। কিন্তু টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়েও আছে নানা কথা। এ নিয়ে অনেকেই আতঙ্কে ভুগছেন। তবুও এই মুহূর্তে টিকার বিকল্প নেই, বলছেন চিকিৎসকরা। একই সঙ্গে বাতলে দিয়েছেন করোনা টিকা নেওয়ার পর ডায়াবেটিস রোগীদের যেসব বিষয় মেনে চলতে হবে।

খাওয়া-দাওয়া

সবার আগে দিকে নজর দিতে হবে খাবারে ওপর। খাদ্য তালিকায় এমন কিছু খাবার রাখতে হবে, যা প্রতিরোধ শক্তি বাড়ায়। ডায়াবেটিস রোগীরা রোজ প্রোটিন যুক্ত খাবারের পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে পারেন প্রতিষেধক নেওয়ার সময়ে। বিশেষ করে মাছ, মাংস ও ডিম খান। প্রতিষেধক নেওয়ার পরপর সপ্তাহে অন্তত দু’তিন বার মুরগির মাংস খাওয়া ভাল। সঙ্গে যথেষ্ট পরিমাণ সবজি ও ফল খেতে হবে।

হলুদ খাওয়া

টিকার নেওয়ার পর হলুদ খাওয়ার দরকার। এতে কার্ক্যুমিন থাকে। তা শরীরের জন্য ভাল। মানসিক চাপ কমায়। দুধের সঙ্গে মিশিয়ে রোজ একটু হলুদ খেলে চাপ কমবে, প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়বে।

ধূমপানকে না

প্রতিষেধক নেওয়ার সময়ে ডায়াবেটিস রোগীদের আর একটি কথা মনে রাখা জরুরি। কোনও ভাবে কয়েকটি দিন ধূমপান এবং মদ্যপান করা চলবে না। তাতে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার জের সামলানো কঠিন হতে পারে।

খালি পেটে টিকা নয়

চিকিৎসকরা জানিয়ে দিয়েছেন ডায়াবেটিস রোগীদের খালি পেটে টিকা নেওয়াও কোনও ভাবেই চলবে না। এতে সমস্যা দেখা দিতে পারে। কিছু একটা খেয়ে তার পর টিকা গ্রহণ করাই বুদ্ধিমানের কাজ।

উল্লেখ্য, কখনও কখনও প্রতিষেধকের কারণে সামান্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হয়ে থাকে। কিন্তু ডায়াবেটিস রোগীদের করোনায় সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই কমাতে পারে টিকা। ফলে সাবধানে, নিয়ম মেনে টিকা নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হওয়া জরুরি।